মহাভারত - এমনকি কৃষ্ণও এর থেকে মুক্ত নন

এই প্রতিবেদনে সদগুরু লিখছেন, "আমরা মহাভারতের কার্যক্রম শুরু করতে চলেছি। সমগ্র বিশ্ব থেকে চারশোরও বেশি অংশগ্রহণকারী এসেছেন এই মহান কাব্যে ভাগ নিতে; পাঁচ হাজার বছর আগে ঘটে যাওয়া একটা কাহিনী, কিন্তু অনেক দিক থেকেই চিরকালের মত আজকের দিনেও একইভাবে প্রাসঙ্গিক।" কিছু ফটোর স্লাইড- শো এবং সদগুরু রচিত তিনটি নতুন কবিতা বর্ণিত করে এই বিশাল অনুষ্ঠান এবং এর চরিত্রগুলোর সংগ্রাম।
 
 
 
 

মরা মহাভারত কার্যক্রম শুরু করার মুখে। সারা বিশ্ব থেকে ৪৫০ এর বেশি অংশগ্রহণকারী এই জমজমাট মহাকাব্যে ভাগ নিতে এসেছেন, যেটা ৫০০০ বছর আগে ঘটে যাওয়া একটা কাহিনী, কিন্তু অনেক দিক থেকেই চিরকালের মতো আজও একইভাবে প্রাসঙ্গিক। প্রায় এক লক্ষেরও বেশি শ্লোকের মাধ্যমে বর্ণনা করা হয়েছে কয়েক হাজার চরিত্র, তাদের জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত - তাদের জয়যাত্রা, আনন্দ, যন্ত্রণা এবং পূর্বজন্ম। এই আটদিন ধরে আমরা এই কাহিনীকে গল্প হিসেবে দেখবো না বরং আমাদের কাছে এর প্রাসঙ্গিকতা তুলে ধরবো। এই কাহিনীর মাধ্যমে জীবনকে উপলব্ধি করা এবং প্রকৃত মানুষ হওয়ার তাৎপর্য কী- তা গভীর ভাবে অনুভব করার এটি একটি সুযোগ।

Panchali


So full of fire she had to be of fire
Of passion, pride, shame and rage.
Too fiery to rise, too fiery to fall.
Her beauty and passion consumed all.
line 3...What a lovely snare

But when life gets mean
You will want a good man.
And a good man
As tedious as
Only good can get.

But when life gets mean
You will want a good man..

এমনকি কৃষ্ণও একজনের মনুষ্য জীবন ধারণ বলতে যা বোঝায় তার থেকে মুক্ত নন। তিনি বলেছেন - যেহেতু আমি মানবদেহ নিয়ে এসেছি, মানব জীবনের সকল সীমাবদ্ধতা আমার ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য, যদিও আমি অন্যরকমভাবে সমর্থ। আমার ইচ্ছামত আমি অন্য বলয়ে যেতে পারি। কিন্তু মায়ের গর্ভে আমার জন্ম। আমিও মৃত্যুবরণ করবো এবং আমিও সে সব কিছুর মধ্য দিয়ে জীবন অতিক্রান্ত করব যা প্রতিটি মানুষকেই করতে হয়।

এটাই হলো ধর্ম। চোদ্দো বছর বয়সে আপনি অনেক কিছু করেছিলেন- পিছনে তাকিয়ে আপনি কি বলেন না, 'এটা কি আমিই ছিলাম? আমাকে এসব করতে হয়েছিল?' আপনার যদি এরকম মনে না হয়- তার মানে আপনি আদৌ বেড়ে ওঠেননি, আপনি এখনও চোদ্দো বছরেই আছেন। সুতরাং একটা নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া আছে। একবার যখন আপনি এই দেহ ধারন করেন, এই প্রক্রিয়ার ব্যাপারে একটা প্রাকৃতিক নিয়ম আছে। তবে এটা আপনার একটা প্রান্ত উন্মুক্ত রাখে, এটাই হল মানুষ হওয়ার বিশেষত্ব। অন্য সব জীবদের ক্ষেত্রে প্রকৃতি দুটো প্রান্তই নির্ধারণ করে দিয়েছে। একজন মানুষের জন্য প্রকৃতি একটা প্রান্ত নির্ধারণ করে দিয়েছে। কৃষ্ণ স্পষ্টভাবে বলছেন, 'এমনকি আমার জন্যও একটা প্রান্ত নির্ধারিত। অন্য প্রান্তটা খোলা। এবং আমি দেখতে চাই এটা যেন অন্য সকলের জন্যও খোলা থাকে।

সোমবার রাত্রে যক্ষ শুরু হয়েছিল এবং লিঙ্গ ভৈরবী মন্দিরের সামনে ভারতনাট্যম নৃত্যশিল্পী আলামেল ভাল্লি চমৎকার নৃত্য পরিবেশন করেছেন। আমি এখন দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানে যাচ্ছি … আশ্রমে একটানা অনুষ্ঠান চলছে, আরও অনেক কিছু হওয়ার আছে -- মহাশিবরাত্রির আর এক সপ্তাহও বাকি নেই।

ভালবাসা এবং আশীর্বাদ